Chairman

 

 


বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম

 

চেয়ারম্যানের বাণী

 

মানুষ স্বভাবতই দ্বিজ। প্রথম জন্ম মানুষের প্রাকৃতিক। এর ওপর কারো হাত নেই কিন্ত মানুষ তার জাগতিক কর্মকান্ড, আচার-আচরণ দ্বারা তার পূণর্জন্ম ঘটাতে পারে। আর এপূণর্জন্ম ঘটানোর একমাত্র নিয়ামক শিক্ষা। মোতাহের হোসেন চৌধুরীর মতে, ‘জীবসত্তার ঘর থেকে মানবসত্তার ঘরে ওঠার মই হচ্ছে শিক্ষা সুশিক্ষা মানুষের অন্তরকে আলোকিত করে, তার ভেতরের মানুষটিকে জাগিয়ে তুলে। তাকে মানুষের মত মানুষ হতে সাহায্য করে। তাকে মনুষ্যত্বের পরিতৃপ্তি নিয়ে বাচঁতে শেখায়। আলোকিত মানুষ গড়তে চাই আদর্শ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। আর এলক্ষ্যেই প্রতিষ্ঠিত হয়েছেমহানগর আইডিয়াল কলেজ অপরাধ, দুর্নীতি, নৈরাজ্য, সর্বোপরি মানবিক মূল্যবোধের অবক্ষয় আমাদের আজকের সমাজ ব্যবস্থাকে অক্টোপাসের মতো ঘিরে রেখেছে। এসব অসঙ্গতি চারদিক থেকে এমনভাবে জেঁকে বসেছে যে, সচেতন অভিভাবক হিসেবে আমাদের প্রত্যেককে তা মর্মাহত করে। ভবিষৎ প্রজন্মের কাছে আমরা সবাই দায়বদ্ধ। আমরা কেউ এদায়বদ্ধতা এড়াতে পারিনা। তাই পরবর্তী প্রজন্মকে এসব অসঙ্গতির মোকাবেলা যাতে না করতে হয়, সেজন্য এখন থেকেই আমাদের কাজ করে যেতে হবে। আর একাজের অংশ হিসেবে এগিয়ে আসেন একদল উচ্চ শিক্ষিত উদ্যোমী ব্যক্তিত্ব এবং প্রতিষ্ঠা করেনমহানগর আইডিয়াল কলেজ দায়বদ্ধতার তাগিদ থেকে মহানগর আইডিয়াল কলেজের জন্ম। কাজেই এশিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাফল্য অনিবার্য। পরম করুণাময় আল্লাহ তায়ালার ওপর ভরসা রেখে বলতে চাই যে, ‘মহানগর আইডিয়াল কলেজঅচিরে দেশের শীর্ষ স্থানীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরিণত হবে। কাজেই সম্মানিত অভিভাবকদের প্রতি আমার উদাত্ত আহবান - আসুন, আপনি আপনার সন্তানকে এই কলেজে ভর্তি করিয়ে এবং নানামুখী পরামর্শ প্রদান করে এমহৎ কাজকে এগিয়ে নিতে সাহায্য করুন

 

 

 

                                                                  মোহাম্মদ সেকেন্দার হোসেন

                                                                  চেয়ারম্যান

                                                                  মহানগর আইডিয়াল কলেজ